ব্রেকিং:
দিনাজপুরে গত ২৪ ঘণ্টায় ৬ জন ব্যক্তি করোনা ভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে জেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ৪ হাজার ৬২৫ জনে। সোমবার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দিনাজপুরের সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ আব্দুল কুদ্দুছ।
  • সোমবার   ১৮ জানুয়ারি ২০২১ ||

  • মাঘ ৫ ১৪২৭

  • || ০৪ জমাদিউস সানি ১৪৪২

সর্বশেষ:
মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক চলচ্চিত্র নির্মাণের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর করোনা: দিনাজপুরে নতুন আরো ৬ জন আক্রান্ত ২৬ জানুয়ারির মধ্যে সেরামের টিকা আসবে- স্বাস্থ্যমন্ত্রী তীব্র শীতে নাকাল পঞ্চগড়-ঠাকুরগাঁও-কুড়িগ্রামের মানুষ বাংলাদেশে টিকা পাঠানোর প্রক্রিয়া শুরু সেরামের

আত্মগোপনে চলে গেছেন বিএনপি নেতা-কর্মীরা 

– দৈনিক ঠাকুরগাঁও নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২২ নভেম্বর ২০২০  

রাজধানীতে হঠাৎ নয়টি বাসে আগুন দেয়া, হাতবোমা উদ্ধারসহ বেশ কিছু ইস্যুতে বিএনপির সংশ্লিষ্টতা পাওয়া গেছে। আর এ কারণে নেতা-কর্মীদের অনেকেই চলে গেছেন আত্মগোপনে।
এদিকে ঢাকা-১৮ আসনের উপ-নির্বাচনের দিন অগ্নিসংযোগের ঘটনায় বিএনপির প্রত্যক্ষ সংশ্লিষ্টতার প্রমাণ পাওয়া যায়। অগ্নিসংযোগের ঘটনার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য ফরিদা ইয়াসমিন ও দলের ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট নিতাই রায় চৌধুরীর মধ্যে কথোপকথনের একটি অডিও ক্লিপ ফাঁস হয়।

ওই কথোপকথনে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট নিতাই রায় চৌধুরীকে নির্বাহী কমিটির সদস্য ফরিদা ইয়াসমিন জানান, যুবদলের ছেলেরা বাসে আগুন দিয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দলের এক শীর্ষ নেতা বলেন, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেকের ইন্ধনেই গত ১২ নভেম্বর রাজধানীতে বাসে আগুন দেয় যুবদলের কর্মীরা।

ওই অগ্নিসংযোগের ঘটনায় বিএনপির ১ হাজার ৪৭৮ জন নেতা-কর্মীর বিরুদ্ধে নতুন করে ১৬টি মামলা হয়েছে। অনেককে অজ্ঞাত আসামিও করা হয়েছে। তিনজনকে এরই মধ্যে গ্রেফতারও করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

আর এসব কারণেই আতঙ্ক বিরাজ করছে দলের মধ্যম সারির নেতাদের মধ্যে। ঢাকা মহানগর বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদল, স্বেচ্ছাসেবক দলসহ অঙ্গসংগঠনের নেতা-কর্মীদের অনেকেই চলে গেছেন আত্মগোপনে। নেতা-কর্মীদের অনেকের মুঠোফোনও রয়েছে বন্ধ।  

দলীয় সূত্র জানায়, বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদার রাজনীতিতে ফেরা অনেকটাই অনিশ্চিত। এ নিয়ে নেতা-কর্মীদের মধ্যেও হতাশা বিরাজ করছে। দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানও সাজাপ্রাপ্ত আসামি হয়ে লন্ডনে পলাতক। তার দেশে ফেরাটাও অনিশ্চিত। পাশাপাশি বিএনপির মিত্র ২০ দলীয় জোট ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গেও চলছে টানাপোড়েন।

এ অবস্থায় দলের মধ্যে এক ধরনের নেতৃত্বশূন্যতার সৃষ্টি হয়েছে। যার ফলে কয়েকজন নেতা পদত্যাগও করেছেন। আরো কয়েকজন নেতা দলের শীর্ষস্থানীয় নেতাদের বিরুদ্ধে বেফাঁস মন্তব্য করে নেতা-কর্মীদের তোপের মুখে পড়েছেন। ফলে বিএনপির মধ্যে এখন বিশৃঙ্খল অবস্থা বিরাজ করছে।

এ বিষয়ে রাজনৈতিক বিশ্লেষকেরা বলেন, ক্ষমতার বাইরে থাকা বিএনপি প্রায় এক যুগেও দল গুছিয়ে উঠতে পারেনি। অঙ্গসংগঠনগুলো পুনর্গঠন করতে গিয়ে মাঠের কোন্দল নতুন করে শুরু হয়েছে। তাই নানা অভিযোগ আসছে দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতাদের বিরুদ্ধে। দলের ভঙ্গুর সাংগঠনিক কাঠামো ও অদক্ষ নেতৃত্বের কারণে আগুন সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের দিকে ঝুঁকে পড়ছে দলের নেতা-কর্মীরা।

– দৈনিক ঠাকুরগাঁও নিউজ ডেস্ক –