• মঙ্গলবার   ৩১ জানুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ১৮ ১৪২৯

  • || ০৮ রজব ১৪৪৪

হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর কবরে সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা

– দৈনিক ঠাকুরগাঁও নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ৫ ডিসেম্বর ২০২২  

হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর কবরে সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা             
গণতন্ত্রের মানসপুত্র হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর ৫৯তম মৃত্যুবার্ষিকীতে তার কবরে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন সর্বস্তরের মানুষ।

সোমবার সকালে রাজধানীর দোয়েল চত্বরে অবস্থিত জাতীয় তিন নেতার সমাধিস্থলে হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর কবরে শ্রদ্ধা জানান সর্বস্তরের সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক সংগঠন।

এ সময় সোহরাওয়ার্দীর মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভার আয়োজন করে জাতীয় স্বাধীনতা পার্টি ও বাংলাদেশ জাতীয় গণতান্ত্রিক লীগ। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান, বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন একুশে পদকপ্রাপ্ত বাংলাদেশ বেতারের শিল্পী রফিকুল ইসলাম ও স্বাধীনতা পুরস্কারপ্রাপ্ত ইতিহাসবিদ সিরাজ উদ্দীন আহমেদ। সভাপ্রধান ছিলেন জাতীয় স্বাধীনতা পার্টি সভাপতি মোয়াজ্জেম হোসেন খান মজলিশ।

অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেন, দেশভাগের অত্যন্ত কঠিন সময়ে বাংলার প্রধানমন্ত্রী ছিলেন হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী। বঙ্গবন্ধুর গণমানুষের নেতা হয়ে ওঠা এবং আপামর বাঙালির মুক্তির কাণ্ডারি হয়ে ওঠার পেছনে তিনি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন। বাঙালি আজীবন তাকে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করবে।

এর আগে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের নেতৃত্বে দলের পক্ষে হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হয়। 

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- আওয়ামী লীগের সভাপতি মণ্ডলীর সদস্য ড. আব্দুর রাজ্জাক, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, এসএম কামাল হোসেন, আফজাল হোসেন, সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক ড. সেলিম মাহমুদ, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক জাহানারা বেগম, শিক্ষা ও মানবসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক শামসুন নাহার চাপা, উপ-দপ্তর সম্পাদক সায়েম খান, কার্যনিবাহী সদস্য আনোয়ার হোসেন, সাহাবুদ্দিন ফরাজি, আজিজুস সামাদ আজাদ ও সৈয়দ আবদুল আউয়াল শামীম।

ওবায়দুল কাদের বলেন, হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর মৃত্যু নিয়ে রহস্য রয়েছে, এর পেছনে কোনো ষড়যন্ত্র আছে কি না সেটা আমরা আজও জানি না। হোসেন সোহরাওয়ার্দী গণতন্ত্রের মানসপুত্র। গণতন্ত্রই তার জীবনের মূল ভিত্তি।

তিনি আরো বলেন, বিএনপির সমাবেশ নিয়ে মানুষ আতঙ্কে আছে। বিএনপি জঙ্গিবাদ ও সাম্প্রদায়িকতার পৃষ্ঠপোষক। সমাবেশের নামে বিশৃঙ্খলা করলে তাদেরকে আর ছাড় দেয়া হবে না।

মন্ত্রী আরও বলেন, বিএনপির প্রহসনের নির্বাচন দেশের ইতিহাসে আছে। মিথ্যা মামলা দিয়ে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের ঘরে থাকতে দেয়া হয়নি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বাংলাদেশে গণতন্ত্র বিকাশে পদে পদে বাধা সৃষ্টি করা হয়েছে। বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা ১৯৮১ সালে স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের পর গণতন্ত্রের জন্য তিনি লড়াই শুরু করেন। সারা দেশ ঘুরে ঘুরে মুক্তিযুদ্ধের মূল্যবোধের পক্ষে, স্বাধীনতার আদেশের পক্ষে, গণতন্ত্রের পক্ষে তিনি ক্যাম্পিং করেন। জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করে গণতন্ত্রের শৃঙ্খল মুক্তি ঘটিয়েছেন।

মৃত্যুবার্ষিকীতে তার কবরে আরও শ্রদ্ধা জানায় বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় পরিবার, উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র পরিষদ, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, আওয়ামী মৎসজীবী লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী স্মৃতি পরিষদ, জাতীয় স্বাধীনতা পার্টি, স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ (স্বাচিপ) ও বাংলাদেশ জাতীয় গণতান্ত্রিক লীগসহ আওয়ামী লীগের ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনসমূহ।

– দৈনিক ঠাকুরগাঁও নিউজ ডেস্ক –