• শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪ ||

  • ফাল্গুন ১৭ ১৪৩০

  • || ১৯ শা'বান ১৪৪৫

সর্বশেষ:
পুলিশকে বন্ধু হিসেবে জনগণের পাশে থাকতে হবে: রাষ্ট্রপতি চিকিৎসকদের দায়িত্ব নিয়ে সেবা দিতে হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী রোজায় বড় ইফতার পার্টি না করার নির্দেশনা প্রধানমন্ত্রীর দিনাজপুরে সোহেল হত্যা মামলায় ৫ জনের যাবজ্জীবন কাউনিয়ায় ভুট্টা গাছের সঙ্গে শত্রুতা

ভাষা আন্দোলনের মধ্য দিয়ে বাঙালি জাতিসত্তার জাগরণ: রসিক মেয়র   

– দৈনিক ঠাকুরগাঁও নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩  

                     
রংপুর সিটি করপোরেশনের (রসিক) মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা বলেছেন, ভাষা আন্দোলনের মধ্য দিয়ে বাঙালি জাতিসত্তার জাগরণ রচিত হয়েছে। এই আন্দোলনের পথ ধরেই আমাদের স্বাধীনতা এসেছে। শহীদদের আত্মত্যাগ স্বার্থক হয়েছে। বাংলা, বাঙালি এবং স্বাধীন বাংলাদেশের ভূখণ্ডের যে স্বপ্ন দেখেছি তার সূতিকাগার বায়ান্নর ভাষা আন্দোলন। আমাদের বাঙালি জাতির জন্য একুশে ফেব্রুয়ারি একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ দিন।

সোমবার (২০ ফেব্রুয়ারি) দিবাগত রাত ১২টা ১ মিনিটে রংপুর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ফুলেল শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে প্রথমে রংপুর সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে এবং পরবর্তীতে জাতীয় পার্টির হয়ে তিনি শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। এ সময় তার সঙ্গে রংপুর সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলররা ছাড়াও কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং জেলা ও মহানগর জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

মেয়র মোস্তাফিজার রহমান বলেন, শুধু ফেব্রুয়ারি মাস কিংবা একটি দিনে নয়, আমাদের জাতীয় জীবনের প্রত্যেকটা স্তরে বাংলা ভাষার প্রচলন করতে হবে। তাহলে আমাদের দেশপ্রেম জাগ্রত হবে। আমাদের দেশে দিন দিন বিদেশি ভাষার গুরুত্ব বেড়ে যাচ্ছে। আমরা আন্তর্জাতিক ভাষা শিখব কিন্তু আমাদের গুরুত্ব থাকতে হবে বাংলা ভাষার প্রতি। সর্বস্তরে বাংলা ভাষার প্রচলন নিশ্চিত করতে হবে। তা না হলে ভাষা শহীদদের আত্মত্যাগের সঠিক মূল্যায়ন হবে না।

এদিকে রাত ১১টার পর থেকে রংপুর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার অভিমুখে মানুষের ঢল নামে। হাতে শ্রদ্ধার ফুল আর কণ্ঠে বাঙালি চেতনার চিরঞ্জীব স্লোগানে মুখরিত হয়ে উঠে নগর। ঘড়ির কাটা ১২টায় পৌঁছানোর আগেই বিভিন্ন বয়সী মানুষের ভিড়ে কানায় কানায় পূর্ণ হয় শহীদ মিনার চত্বর।

রাত ১২টা ১ মিনিটে ভাষা শহীদদের আত্মত্যাগের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে শুরু হয় শহীদ বেদিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ। রংপুর বিভাগীয় কমিশনার সাবিরুল ইসলাম ও রংপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা প্রথমে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান।

এরপর রংপুর রেঞ্জ ডিআইজি মোহাম্মদ আবদুল আলীম মাহমুদ, মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার নুরেআলম মিনা, জেলা প্রশাসক ড. চিত্রলেখা নাজনীন, জেলা পুলিশ সুপার ফেরদৌস আলী চৌধুরী, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মোছাদ্দেক হোসেন বাবলুসহ প্রশাসন, সরকারি ও বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তারা ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। একে একে সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর পরিষদ, সরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও সংস্থা ছাড়াও আওয়ামী লীগ, জাতীয় পার্টি, বিএনপি, জাসদ, বাসদসহ প্রগতিশীল রাজনৈতিক দল ও অঙ্গ সংগঠনগুলো ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানায়।

এছাড়া শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করেছে রংপুর মহানগর আওয়ামী লীগ, জেলা ও মহানগর জাতীয় পার্টি, জাসদ, বাসদ, কমিউনিস্ট পার্টি, প্রেসক্লাব, রিপোর্টার্স ক্লাব, সিটি প্রেসক্লাব, রিপোর্টার্স ইউনিটি, বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন, টিসিএ রংপুরসহ বিভিন্ন পেশাজীবী, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক ও ক্রীড়া সংগঠন।

শ্রদ্ধা জানাতে আসা বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীসহ সাধারণ মানুষ দেশের সর্বস্তরে শুদ্ধ বাংলা ভাষার ব্যবহার নিশ্চিত করার পাশাপাশি প্রতিটি অঞ্চলের আঞ্চলিক ভাষা সংরক্ষণ ও গবেষণার জন্য সরকারকে আরও উদ্যোগী হওয়ার আহ্বান জানান।

– দৈনিক ঠাকুরগাঁও নিউজ ডেস্ক –