• শনিবার ২০ জুলাই ২০২৪ ||

  • শ্রাবণ ৫ ১৪৩১

  • || ১২ মুহররম ১৪৪৬

সর্বশেষ:
সর্বোচ্চ আদালতের রায়ই আইন হিসেবে গণ্য হবে: জনপ্রশাসনমন্ত্রী। ২৫ জুলাই পর্যন্ত এইচএসসির সব পরীক্ষা স্থগিত।

আড়ালে পপি, অনিশ্চিত ‘সেভ লাইফ’র ভবিষ্যৎ!

– দৈনিক ঠাকুরগাঁও নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২৯ আগস্ট ২০২৩  

ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা কতটা ঝুঁকি নিয়ে কাজ করেন তা সেলুলয়ের পর্দায় তুলে ধরতে দেশে প্রথমবারের মতো উদ্যোগে নেওয়া হয় তাদের নিয়ে সিনেমা নির্মাণের। তাদের সুখ দুঃখের গল্প উঠে আসবে কাজী আমিরুল ইসলাম শোভা পরিচালিত ‘সেভ লাইফ’ সিনেমায়।

২০১৮ সালের ১১ আক্টোবরে রাজধানীর গুলিস্তানের ফায়ার সার্ভিসের অফিসে সিনেমাটির মহরত হয়। এ সিনেমার গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত নায়িকা চম্পা, ফেরদৌস আহমেদ, সাদিকা পারভিন পপি, আনিসুর রহমান মিলন, আইরিন সুলতানা, ওবিদ রেহান, মানস বন্দ্যোপাধ্যায়, আহসানুল হক মিনু, তানভীর প্রমুখ।

মহরতের পরেই দ্রুত গতিতে সিনেমাটির দৃশ্যধারণ শুরু হয়। সেসময় ৩৫ ভাগ কাজ করার পর হঠাৎ করেই সিনেমাটির নির্মাণ কাজ বন্ধ হয়ে যায়। এরপর পেরিয়ে গেছে দীর্ঘ চার বছরেরও বেশি সময়। আজও সিনেমাটির ক্যামেরা নতুন করে আর চালু হয়নি।

এর মধ্যে দীর্ঘ তিন বছর ধরে নিজেকে একেবারে আড়াল করে রেখেছেন চিত্রনায়িকা পপি। সিনেমার কাজ থেকে নিজেকে দূরে রেখেছেন আরেক চিত্রনায়িকা আইরিন সুলতানা। স্ত্রী মারা যাওয়ার পর দেড় বছরের মতো সময় যুক্তরাষ্ট্রে ছিলেন অভিনেতা আনিসুর রহমান মিলন।

সম্প্রতি তিনি কয়েক মাসের জন্য দেশে ফিরেছেন থমকে থাকা সিনেমার কাজ শেষ করার জন্য। ইতোমধ্যেই একটি সিনেমার কাজ শেষ করেছেন তিনি। তবে চার বছর ধরে তার কাছে খবর নেই ‘সেভ লাইফ’ সিনেমাটির।

মাঝে ২০২০ সালের মে মাসে জটিলতা কাটিয়ে সিনেমাটির শুটিং শুরু হওয়ার কথা জানিয়েছিলেন এর নির্মাতা। তবে আজও শুটিং ফ্লোরে গড়ায়নি সিনেমাটি। আদৌ সিনেমাটি আলোর মুখ দেখবে কিনা তা নিয়ে দেখা দিয়েছে এক ধরনের অনিশ্চয়তা! সিনেমাটির শিল্পীরাও জানেন না আদৌ কাজটি শেষ হবে কিনা?

এ প্রসঙ্গে অভিনেতা আনিসুর রহমান মিলনের ভাষ্য, সিনেমাটি যেভাবে শুরু হয়েছিল সে অনুযায়ী আগাতে পারেনি। এরপর এই চার বছরে সিনেমাটির খবর নেই। কেউ এ নিয়ে যোগাযোগ করেনি। আমার মনে হচ্ছে এটি আর হবে না।

এক প্রশ্নের জবাবে আইরিন বলেন, চার বছর আগে সিনেমাটির শুটিং শুরু হয়েছিল। কিছুদিন কাজ হয়ে অজানা কারণে এর নির্মাণ কাজ বন্ধ হয়ে যায়। এখন প্রযোজক-পরিচালক ভালো বলতে পারবেন সিনেমাটি আলোর মুখ দেখবে কিনা। ২০২২ সালে একবার পরিচালক যোগাযোগ করেছিল। সেসময় কাজটি করার কথা জানিয়েছিল। এরপর যোগাযোগ হয়নি। এর বেশি কিছু আমি জানি না।

এ প্রসঙ্গে পরিচালক কাজী আমিরুল ইসলাম শোভার বলেন, করোনার কারণে কাজটি শুরু করতে পারিনি। এর মধ্যে আমি হজ করেছি। আগামী ডিসেম্বরে শুরু করার পরিকল্পনা রয়েছে। যারা সিনেমাটিতে কাজ করছেন আর ব্যস্ত শিল্পী নয়। চাইলে খুব সহজেই সিডিউল মিলিয়ে কাজটি শুরু করতে পারব।

তিন বছর ধরে নায়িকা পপি উধাও। শোনা যাচ্ছে, তিনি আর কাজে ফিরবেন না। সেক্ষেত্রে কি হবে? এমন প্রশ্নের উত্তরে এই নির্মাতা বলেন, অন্যশিল্পীদের নিয়ে কাজটি শুরু করব। তার (পপি) সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করব। তাকে না পাওয়া গেলে বিকল্প ভাবতে হবে। তবে সেটি তার অনুমতি নিয়ে। কারণ তার সঙ্গে আমার চুক্তি আছে। এর আগে ৩৫ ভাগ কাজ শেষ করেছিলাম। এবার বাকি কাজটা শেষ করতে চাই।

সিনেমাটিতে চুক্তিবদ্ধ হয়ে চিত্রনায়ক ফেরদৌস বলেছিলেন, ‘সেভ লাইফ’ সিনেমার গল্প ভাবনাটা আমার কাছে ভীষণ ভালো লেগেছে। যে কারণে আর দেরি না করে এতে অভিনয়ে রাজি হয়েছি। এই সিনেমার গল্প সত্যিকার অর্থে আমাদের জীবনের গল্প। এভাবে প্রতিটি সেক্টরের সত্যিকারের হিরোদের নিয়ে যদি আমাদের দেশে চলচ্চিত্র নির্মাণ করা হয়, তাহলে শুধু দেশের মানুষই নয়, বিশ্বের মানুষরাও জানতে পারবে আমরা কতটা দেশপ্রেমী।

এই সিনেমায় ফায়ার সার্ভিসের একজন কর্মকর্তা মেরিনা চরিত্রে অভিনয় করছেন চম্পা। তার চেয়েও একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জয়নালের চরিত্রে অভিনয় করছেন ফেরদৌস। মূলত তার অধীনেই কাজ করতে দেখা যাবে চম্পা, ওবিদ রেহান ও আইরিনকে।

ফায়ার সার্ভিস কল্যাণ ট্রাস্ট ও আরজিবি মিডিয়ার যৌথ উদ্যোগে নির্মিত হবে ‘সেভ লাইফ’। সিনেমাটির কাহিনি ও সংলাপ লিখেছেন কুমার প্রীতিশ বল।

– দৈনিক ঠাকুরগাঁও নিউজ ডেস্ক –