• বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০২৪ ||

  • শ্রাবণ ৩ ১৪৩১

  • || ১০ মুহররম ১৪৪৬

সর্বশেষ:
সর্বোচ্চ আদালতের রায়ই আইন হিসেবে গণ্য হবে: জনপ্রশাসনমন্ত্রী। ২৫ জুলাই পর্যন্ত এইচএসসির সব পরীক্ষা স্থগিত।

নিখোঁজের ৫ ঘণ্টা পর নদীতে মিলল স্কুলছাত্রের মরদেহ

– দৈনিক ঠাকুরগাঁও নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ৪ জুলাই ২০২৪  

ঠাকুরগাঁও জেলার রাণীশংকৈলে নদীতে গোসল করতে নেমে সঞ্জয় মহন্ত সাহা (১৫) নামে এক স্কুল ছাত্র মারা গেছে। বুধবার বিকালে উপজেলার পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে বার্ষিক মূল্যায়ন পরীক্ষা শেষে বিদ্যালয়সংলগ্ন কুলিক নদীতে গোসল করতে গিয়ে সে নিখোঁজ হয়।

নিখোঁজের প্রায় ৫ ঘণ্টা পর ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা তার মরদেহ উদ্ধার করেন। এ ঘটনায় রাব্বির পরিবার ও এলাকায় নেমে এসেছে শোকের ছায়া।

সঞ্জয় উপজেলার পৌর শহরের ২ নম্বর ওয়ার্ড ডাবতলী এলাকার অমল মহন্ত সাহার ছেলে। সে উপজেলার পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্র ছিলেন।

প্রত্যক্ষদর্শী বরাত দিয়ে রাণীশংকৈল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জয়ন্ত কুমার সাহা বলেন, বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে বার্ষিক পরিক্ষা শেষে ব্রিজ দিয়ে বাড়ি ফিরছিল কয়েকজন শিক্ষার্থী। এ সময় হঠাৎ তার এক বন্ধুকে নদীতে গোসল করতে দেখে সঞ্জয়। এর পর ব্রিজ থেকে সেও গোসলের উদ্দেশ্যে নদীতে ঝাঁপ দেয়। পরে বন্ধুরা তাকে দেখতে না পেয়ে খোঁজাখুঁজি করে। অনেক খোঁজাখুঁজি করে না পেয়ে সঞ্জয় মহন্ত সাহার বাড়িতে খবর দেওয়া হয়। পরে উদ্ধারে যোগ দেয় ফায়ার সার্ভিস।

নিখোঁজ সঞ্জয় মহন্ত সাহার বন্ধুরা জানান, আজ বিকালে পরীক্ষা শেষে বিদ্যালয় সংলগ্ন কুলিক নদীর ব্রিজ দিয়ে বাড়ি ফিরছিল তারা। এ সময় তার এক বন্ধুকে নদীতে গোসল করতে দেখে সঞ্জয় মহন্ত সাহা ব্রিজের উপর থেকে নদীতে ঝাঁপ দেয়।পরে তার বন্ধুরা তাকে দেখতে না পেয়ে তারা খোঁজাখুঁজি করে। না পেয়ে সঞ্জয় মহন্ত সাহার বাড়িতে খবর দেয়। পরবর্তীতে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের কর্মীরা ৫ ঘন্টা পর তার মরদেহের খোঁজ পান।

রানীশংকৈল ফায়ার স্টেশনের স্টেশন অফিসার নাসিম ইকবাল বলেন, খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে খোঁজাখুজি শুরু করেন। প্রায় ৫ ঘণ্টা খোঁজার পর ছেলেটির মরদেহ আমরা উদ্ধার করি।

– দৈনিক ঠাকুরগাঁও নিউজ ডেস্ক –