• শুক্রবার ১৯ জুলাই ২০২৪ ||

  • শ্রাবণ ৩ ১৪৩১

  • || ১১ মুহররম ১৪৪৬

সর্বশেষ:
সর্বোচ্চ আদালতের রায়ই আইন হিসেবে গণ্য হবে: জনপ্রশাসনমন্ত্রী। ২৫ জুলাই পর্যন্ত এইচএসসির সব পরীক্ষা স্থগিত।

২০২৬ বিশ্বকাপে খেলতে পারবে কি পাকিস্তান-নিউজিল্যান্ড, নিয়ম যা বলে

– দৈনিক ঠাকুরগাঁও নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১৬ জুন ২০২৪  

নবম টি-২০ বিশ্বকাপে ফেভারিট হিসেবে অংশ নিয়েছিল পাকিস্তান ও নিউজিল্যান্ড। তবে বাজে পারফরম্যান্সের কারণে গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নিতে হয়েছে তাদের। একই অবস্থা হয় শ্রীলংকারও। এখন ক্রিকেট প্রেমীদের মনে একটাই প্রশ্ন গ্রুপ পর্ব থেকে জায়ান্ট দলগুলো বাদ যাওয়ায় আগামী আসরে তারা সরাসরি খেলার সুযোগ পাবে তো নাকি বাছাইপর্ব খেলে তাদের আসতে হবে। 

আইসিসি আগেই জানিয়েছিল, চলতি আসরের সুপার এইটে যোগ্যতা অর্জনকারীরা ২০২৬ টি-২০ বিশ্বকাপে সরাসরি অংশগ্রহণ করবে। এখন প্রশ্ন হচ্ছে, পাকিস্তান ও নিউজিল্যান্ডের মতো দল এবার গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায় নিয়েছে। তাই তারা কি আগামী আসরে সরাসরি অংশ নিতে পারবে নাকি বাছাইপর্ব খেলতে হবে?

২০২৬ সালে হবে বিশ্বকাপের দশম আসর। টুর্নামেন্টটি অনুষ্ঠিত হবে ভারত ও শ্রীলংকায়। সেখানেও এবারের মতো ২০টি দল অংশ নেবে। 

আইসিসির নিয়মে বলা আছে, স্বাগতিক হিসেবে দুই, সুপার এইটে সাত ও র‍্যাঙ্কিংয়ের ভিত্তিতে ৩ দল মিলিয়ে সরাসরি ২০২৬ আসরের টিকিট পাচ্ছে মোট ১২টি দল। বাকি আট দল আসবে আঞ্চলিক বাছাই থেকে। এর মধ্যে আফ্রিকা, এশিয়া ও ইউরোপ থেকে দুটি করে ৬টি, আমেরিকা ও পূর্ব–এশিয়া–প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চল থেকে একটি করে দুটি।

দুই স্বাগতিক হিসেবে ইতোমধ্যে দশম আসরে খেলা নিশ্চিত ভারত ও শ্রীলংকার। সুপার এইটে জায়গা করে নেয়া ৬টি দলও সুযোগ পেয়েছে সে আসরে খেলার। তবে এখান থেকে বাদ যাবে ভারত। কেননা তারা স্বাগতিক হিসেবে সেখানে অংশ নেবে। তাই সুপার এইট থেকে সুযোগ পাওয়া দল হবে ৭টি। এখন পর্যন্ত এবারের আসরে সুপার এইট নিশ্চিত হবে বাকি দুটি দল। যারা আসবে তারাই যাবে দশম আসরে। 

আইসিসি ২০২৬ বিশ্বকাপের জন্য দুটি জায়গা রেখেছে শীর্ষ র‍্যাঙ্কিংধারীর জন্য। অর্থাৎ এবারের আসরে সুপার এইটে ওঠা দলগুলোর বাইরে যারা র‍্যাঙ্কিংয়ে ওপরের দিকে, তাদের মধ্যে প্রথম দুটি দল পরের বিশ্বকাপে খেলতে পারবে। 

শর্তে বলা আছে, স্বাগতিক কোটায় টিকিট নিশ্চিত হওয়া দল যদি সুপার এইটে ওঠে, তাহলে র‍্যাঙ্কিংয়ের ভিত্তিতে সুযোগ পাবে আরো একটি দল। ২০২৬ বিশ্বকাপের অন্যতম আয়োজক ভারত এরই মধ্যে সুপার এইট নিশ্চিত করায় র‍্যাঙ্কিংয়ের ভিত্তিতে সুযোগ পাচ্ছে তিন দল।

এই মুহূর্তে আইসিসি টি-টোয়েন্টি র‍্যাঙ্কিংয়ে নিউজিল্যান্ডের অবস্থান ৬ নম্বরে, পাকিস্তান সাতে। এছাড়া সুপার এইট নিয়ে অনিশ্চয়তার মধ্যে থাকা ইংল্যান্ড আছে ৩ নম্বরে। আগামী ৩০ জুনের মধ্যে দলগুলো নিজেদের অবস্থান ধরে রাখলে ২০২৬ আসরে খেলা নিশ্চিত হবে তাদের। 

অপরদিকে ইংল্যান্ড যদি গ্রুপ পর্বের শেষ দিকের সমীকরণ মিলিয়ে সুপার এইটে নিশ্চিত করে তখন র‍্যাঙ্কিংয়ের ভিত্তিতে নিউজিল্যান্ড ও পাকিস্তানের পর তৃতীয় দল হিসেবে বিশ্বকাপের টিকিট পাবে আয়ারল্যান্ড, যারা এখন ১১ নম্বরে আছে। এতে করে বলা যায় আগামী আসরে পাকিস্তান ও নিউজিল্যান্ডেরও খেলা নিশ্চিত।

– দৈনিক ঠাকুরগাঁও নিউজ ডেস্ক –