• রোববার ২৩ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ৯ ১৪৩১

  • || ১৫ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

প্রিন্স হ্যারির জন্মে ‘হতাশ’ হয়েছিলেন রাজা তৃতীয় চার্লস

– দৈনিক ঠাকুরগাঁও নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩  

 
প্রিন্স উইলিয়ামের জন্মের পর দ্বিতীয় সন্তান হিসেবে একটি মেয়ে চেয়েছিলনে ব্রিটেনের বর্তমান রাজা তৃতীয় চার্লস। কিন্তু ডায়ানার গর্ভে ছেলে সন্তান জন্ম নেয়ায় হতাশ হয়েছিলেন তিনি। মৃত্যুর ২৬ বছর পর প্রকাশিত প্রিন্সেস ডায়ানার নতুন একটি অডিও রেকর্ডে এমন তথ্য উঠে এসেছে।

নব্বইয়ের দশকে একাধিক অডিও রেকর্ড করেছিলেন প্রিন্সেস ডায়ানা। ১৯৯৭ সালে গাড়ি দুর্ঘটনায় মৃত্যুর আগে সেগুলো গোপনে লেখক অ্যান্ড্রু মর্টনকে দিয়ে গিয়েছিলেন তিনি। তার মৃত্যুর পর ‘ডায়ানা: হার ট্রু স্টোরি-ইন হার ওন ওয়ার্ড’ নামে বই লেখেন মর্টন।

গত বৃহস্পতিবার (৩১ আগস্ট) ডায়ানার মৃত্যুর ২৬ বছর পূর্ণ হয়েছে। আগামী বছর ‘ডায়ানা: দ্য রেস্ট অব হার স্টোরি’ নামে একটি তথ্যচিত্র মুক্তি পাওয়ার কথা। সেখানে থাকা কিছু অডিও প্রথমবারের মতো সাধারণ মানুষের শোনার সুযোগ হয়েছে। সেসব অডিওর একটিতে প্রিন্স হ্যারির জন্মে তৎকালীন প্রিন্স চার্লসের হতাশার কথা প্রকাশ্যে এসেছে।

এবিসি টেলিভিশনের সকালের অনুষ্ঠান ‘গুড মর্নিং আমেরিকা’র দর্শকেরা অডিও টেপগুলো শোনার সুযোগ পেয়েছেন। যেখানে ডায়ানাকে বলতে শোনা যায়, তার স্বামী প্রিন্স চার্লস এমনকি তার সৎমা রেইন স্পেনসারের সঙ্গে কথা বলেননি। প্রিন্স চার্লস মামির কাছে গিয়ে বলেছিলেন, ‘আপনি জানেন আমরা কতটা হতাশ হয়েছি, আমরা ভেবেছিলাম এবার একটি মেয়ে হবে।’

প্রিন্সেস ডায়ানা বলেন, ‘মামি তার (প্রিন্স চার্লস) মাথায় একটা টোকা দিয়ে বলেন, ‘তোমার নিজেকে ভাগ্যবান ভাবা উচিত যে তোমার একটা সুস্থ সন্তান হয়েছে।’

প্রিন্স চার্লস ও প্রিন্সেস ডায়ানা দম্পতির প্রথম সন্তান প্রিন্স উইলিয়ামের জন্ম ১৯৮২ সালে। পরে ১৯৮৪ সালে জন্ম হয় প্রিন্স হ্যারির।

সদ্য প্রকাশিত রেকর্ডিংগুলোয় ডায়ানা তার সৎমায়ের সঙ্গে তার অস্থির সম্পর্ক নিয়েও আলোচনা করেছেন।

প্রিন্সেস ডায়ানার জীবনীলেখক অ্যান্ড্রু মর্টন এবিসির গুড মর্নিং আমেরিকা অনুষ্ঠানে বলেন, তার (প্রিন্সেস ডায়ানা) কণ্ঠস্বর শোনার মধ্যে একটি সত্যিকারের ‘মর্মস্পর্শী ব্যাপার’ রয়েছে।

মর্টন বলেন, ‘তিনি (প্রিন্সেস ডায়ানা) কখনো এক সেকেন্ডের জন্যও ভাবেননি যে ক্যামিলা রানি হবেন, তাই ইতিহাস উন্মোচনের বিষয়ে আমাদের খুব আলাদা দৃষ্টিভঙ্গি রয়েছে।’

ডায়ানার মৃত্যুর পর ২০০৫ সালে ক্যামিলাকে বিয়ে করেন প্রিন্স চার্লস। রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের মৃত্যুর সিংহাসনে আরোহণের মধ্য দিয়ে রাজা হন চার্লস। আর ব্রিটেনের নতুন কুইন কনসর্ট হন ক্যামিলা।

প্রিন্সেস ডায়ানার রেকর্ড করা মোট সাত ঘণ্টার টেপ আছে উল্লেখ করেন অ্যান্ড্রু মর্টন। তিনি আরো অডিও প্রকাশ করবেন কি না, এমন প্রশ্নে মর্টন বলেন, ‘বিশ্বব্যাপী আগ্রহ রয়েছে, তবে এর প্রতিক্রিয়া কী হয়, তা–ও আমাদের দেখতে হবে।’

সূত্র: সিএনএন

– দৈনিক ঠাকুরগাঁও নিউজ ডেস্ক –