• বুধবার ২২ মে ২০২৪ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ৮ ১৪৩১

  • || ১৩ জ্বিলকদ ১৪৪৫

প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কাঠমিস্ত্রির ব্যতিক্রমী ভালোবাসা 

– দৈনিক ঠাকুরগাঁও নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩  

দৃষ্টিনন্দন একটি চেয়ার বানিয়েছেন ঠাকুরগাঁওয়ের কাঠমিস্ত্রি বিপেন চন্দ্র সরকার। চেয়ারের একপাশে বঙ্গবন্ধু ও অপর পাশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি খচিত করা। তিন মাস ধরে বানানো এ চেয়ারটি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উপহার দিতে চান তিনি। বিপেন চন্দ্র সরকার ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার সালান্দর ইউনিয়নের সিংপাড়া এলাকার নরেশ চন্দ্রের ছেলে।

স্থানীয়রা জানান, ৩১ বছর ধরে কাঠমিস্ত্রীর কাজ করেন বিপিন। পদ্মা সেতু বাস্তবায়নের পর থেকে ভাবনা ছিল প্রধানমন্ত্রীর জন্য কিছু একটা করার। শ্রদ্ধা, ভালবাসা ও সাধ্যের জায়গা থেকে বানিয়েছেন বঙ্গবন্ধু, শেখ হাসিনা ও নৌকা খচিত দৃষ্টিনন্দন একটি চেয়ার। তিন মাস ধরে রাত-দিন পরিশ্রম করে সেগুন কাঠ দিয়ে চেয়ারের কাজ শেষ করেছেন তিনি। চেয়ারটি তৈরি করতে প্রায় দেড় লাখ টাকা খরচ হয়েছে। ব্যতিক্রমী চেয়ারটি দেখতে প্রতিনিয়ত ভিড় করছেন দর্শনার্থীরা।

চেয়ারটি দেখতে আসা সিরাজুল মিয়া বলেন, গত তিন মাস থেকে দেখছি বিপেন দাদা খুব কষ্ট করে চেয়ারটি বানিয়েছেন। আমি মনে করেছিলাম কেউ বানাতে দিয়েছেন। পরে এটা প্রধানমন্ত্রীকে উপহার দিবেন বলে তিনি জানান।

লিয়াকত আলী নামের আরেক দর্শনার্থী জানান, চেয়ারটি বানানোর জন্য বিপিন দাদা তিন মাস থেকে কারো সঙ্গে ভালোভাবে কথাও বলার সময় পাননি। দিন-রাত পরিশ্রম করে নিপুণ হাতের ছোঁয়ায় চেয়ারটি বানিয়েছেন তিনি।

এ বিষয়ে বিপেন চন্দ্র সরকার জানান, দেশে পদ্মা সেতু, মেট্রোরেলসহ নানা উন্নয়নে মুগ্ধ হয়ে প্রধানমন্ত্রীর জন্য উপহার হিসেবে চেয়ারটি বানানো শুরু করি। অনেক যত্ন করে চেয়ারটি বানিয়েছি শুধু প্রধানমন্ত্রীকে উপহার দেওয়ার জন্য। চেয়ারটি কোনোভাবে প্রধানমন্ত্রী উপহার হিসেবে গ্রহণ করলে আমার পরিশ্রম সার্থক হবে। কিন্তু চেয়ারটি কিভাবে প্রধানমন্ত্রীকে পাঠাবো সেটা বুঝতে পারছি না। সেজন্য আমি সবার সহযোগিতা চাই।

স্থানীয় রাজাগাঁও ইউনিয়নের চেয়ারম্যান খাদেমুল ইসলাম বলেন, আমি চেয়ারটি দেখতে গিয়েছিলাম। বিপেন অনেক সুন্দর করে এ চেয়ারটি বানিয়েছেন। আমি প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ করবো চেয়ারটি যেন তিনি গ্রহণ করেন। আমি চাই বিপেনের মনের আশা পূরণ হোক।

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অরুনাংশু দত্ত টিটো জানান, কাঠমিস্ত্রি বিপেন প্রধানমন্ত্রীকে উপহার দেওয়ার জন্য একটি চেয়ার বানিয়েছেন। সে ইতোমধ্যে আমার সঙ্গে যোগাযোগ করেছে। আমি প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরে বিষয়টি অবগত করবো যেন বিপেন চেয়ারটি তাকে উপহার দিতে পারেন।

– দৈনিক ঠাকুরগাঁও নিউজ ডেস্ক –